বাংলাদেশের মানুষ ক্লাস ফাইভ, সিক্স, এইট – এইসব পরীক্ষার প্রশ্নে ভুল দেখলেই ঝাপাইয়া পড়ে – – ফাহাম আব্দুস সালাম

বাংলাদেশের মানুষ ক্লাস ফাইভ, সিক্স, এইট – এইসব পরীক্ষার প্রশ্নে ভুল দেখলেই ঝাপাইয়া পড়ে – জাতিটা রসাতলে জাঙ্গিয়া পৈরা সাতরাইতেছে, সামনে অন্ধকার আসতাছে – এইসব বলে, লেখে। ভয় দেখায় – জাঙ্গিয়াটাও খুইলা যাইতে পারে।

অশিক্ষা আমাদের দেশের জন্যে ভালো, মানুষদের অমায়িক আচোদা বানাইতেছে। এইটা দরকার। অমায়িক আচোদারা শ্রমিক হিসাবে ভালো। আমাদের দরকার গোস্ত ওলা শ্রমিক – মাথায় গোস্ত থাকলে আরো ভালো।

মূর্খ ইনস্টিংক্ট দিয়া চলে – ইন্সটিঙ্কট মানুষের লগে বেইমানি করে কম। কিন্তু অশিক্ষা অমায়িক আচোদারে এমন একটা আজিব জিনিস গিলাইতে পারে যেইটা মূর্খরে পারে না। এই আজিব জিনিসটা হইলো সে একই য়ুনিট দিয়া পুরা পৃথিবীর মাপা শুরু করে এবং এইটারে লেজিট মনে করে। এই সরল গণিত হইলো বেশী টাকা = বেশী ভালো, সব কিছুতে।

মূর্খ জানে এনভারেনমেন্ট হইলো নন-নিগোশিয়েবল, এইটারে টিকাইতে হবে। অমায়িক আচোদা মনে করে টাকা থাকলে, বিজ্ঞানী থাকলে এনভারেনমেন্ট জয় করা ব্যাপারই না। এইটাই হইলো মডার্ন এডুকেশনের হলমার্ক। আপনারে ঐকিক নিয়ম শিখাইবে, এর ইনহেরেন্ট লজিক বুঝায়া কামেল কৈরা দেবে, শুধু বুঝাইবে না ঐকিক নিয়ম, নিয়ম হিসাবে ঠিক হইলেও সব জায়গায় খাটে না।

এইটাই হোলো অশিক্ষার জাদু – অনেকে মিল্লা, প্রতিষ্ঠান কৈরা,য়ুনিফর্ম পৈরা গণ্ডায় গণ্ডায় বোকচোদ বানাইতেছে। আপনারে দেয় এক জাদুর হাতুড়ি আর আপ্নে দুনিয়ার সব কিছুরে পেরেক হিসাবে দেখা শুরু করেন, পিডায়া সব ঠিক।

এই যে পার্পেচুয়াল গাণ্ডুতা, এইটা যদি রাষ্ট্র বজায়া রাখবার চায় তাইলে আপ্নেরে একটা নিয়মের মইধ্যে দিয়া বোকচোদ বানাইতে হইবে। ন্যাচারালি, মানুষ বেকুব হইতে পারে কিন্তু বোকচোদ হয় না – ঐটা ফর্মাল এডুকেশানের কাম। আর ঠিক এইখানেই ক্লাস ফাইভের মাজেজা।

আপনি ক্লাস ফাইভ ছাড়লেও ক্লাস ফাইভ যে আপ্নেরে ছাড়বে, এর কোনো গ্যারান্টি নাই।

আর তাছাড়া বাংলাদেশে কর্মক্ষেত্র বাদ দিলে ৯৫ ভাগ মানুষের ক্লাস ফাইভের চাইতে বেশী বিদ্যা-বুদ্ধির দরকারও নাই। আমরা যেই জিনিসের স্বপ্ন দেখি সেই জিনিস পাইতে হইলে ঠিক এইরকম প্রশ্নই দরকার – ঠিকাছে ব্যাপারটা।

Faham Abdus Salam | উৎস | তারিখ ও সময়: 2017-11-24 05:58:27