ব্লকিত ভাইদের প্রতি ভালবাসা। – রেজাউল করিম ভূইয়া

ব্লকিত ভাইদের প্রতি ভালবাসা।
=======
ইনবক্সে বেশ কিছু ব্লকিত ভাইয়ের কমেন্ট পেলাম। এক ভাই দিলেন। দেখে মনে হল,কিছু বলা দরকার।
=======
প্রথমত: যারা ব্লক হয়েছেন, তাদের প্রতি আমি কোন বিদ্বেষ রাখিনা। বিদ্বেষের কারণে ব্লক করা হয়নি। এটা সম্পূর্ণ ভুল।
ব্লক করা হয়েছে, ঝগড়াঝাটি কেওয়াজ এড়ানোর জন্য। আপনাদের এবং আমাদের সময় বাচানোর জন্য। নিজেরা নিজেরা সময় নষ্ট করে লাভ নাই। আগে আমার এই পলিসি ছিলনা। কিন্তু পরে দেখা গেল, সপ্তাহে ৩০-৪০ ঘন্টা সময় শুধু ঝগড়াঝাটিতেই ব্যয় হচ্ছে, যার কোন ফায়দা নেই। মানে আমার না, আপনাদেরও। এই সময় যদি বোথ পার্টির মানুষ উম্মতের কল্যানে বা ইভেন নিজের কল্যানে ব্যয় করে, সেটা উম্মতের জন্যই ভাল হবে।
========

দ্বিতীয়ত: আমি মনে করিনা, যে যারা ব্লক হয়েছেন, তারা আমার থেকে অনুত্তম। বরং এর উল্টাটা মনে করি। অধিকাংশই ব্লকিত ব্যক্তি আমলের দিক থেকে আমার থেকে এগিয়ে আছেন, এতে সন্দেহ নাই। আমি কোনরকম ফরজ-ওয়াজিব আর হারাম: এই তিন নিয়ে এমফ্যাসিস করি, আর থাকি ফিতনার পিরামিডে, কাজেই ..ইউ নো…; আর তারা তো তাহাজ্জুদ গুজার বান্দা, এক ওয়াক্ত নফল মিস হয়না। আর এমন জায়গায় এমন অবস্থায় আমি থাকি যে আমল করার সুযোগ নাই, গুণাহের সুযোগ বেশী।

কাজেই এটা মোটামুটি নিশ্চিতভাবেই বলা যায়। আল্লাহ ভাল জানেন।

এট দিএন্ড, আল্লাহ আপনার মানহাজ হয়তো দেখবেন না, বরং আমল দেখবেন। আল্লাহ ভাল জানেন। আপনি সালাফী? তার মানে এই নয় যে ডাইরেক্ট জান্নাত। আপনি সালাফী হয়ে নামাজ পড়েন না? রোযা রাখেন না? কোন লাভ নাই। আরেকজন শাফেয়ী হয়ে নামাজ-রোযা পড়ে আপনার আগে জান্নাতে। ব্যাপারটা এরকম।

========

যাদের ব্লক করা হয়েছে, এ কারণগুলোর কারণে করা হয়েছে:

ক. ব্যক্তি আক্রমন করে কমেন্ট করা।
খ. খোঁচা মেরে কথা বলা।
গ. খুব রাগ ঝেড়ে কোন কোশ্চেন করা। যার উত্তর কেউ দেয়নাই, আপাত ঝামেলা হচ্ছেনা। কিন্তু ভবিষ্যতে হবার হাই পটেনশিয়াল আছে। একবার ঝগড়া শুরু হয়ে গেলে, থামানো কঠিন।
ঘ. ডিসেন্ট ভাষায় কিভাবে তর্ক করতে হয় না জানা। বরং মানুষকে তাচ্ছিল্য করে তর্ক করতে থাকা। এবং নিজের মতকে এবসোলিউট ট্রূথ মনে করা।
ঙ. আপনি নিজে খুব ভাল, কিন্তু আপনার বন্ধুবান্ধব হলেন সব গালিবাজ। সেক্ষেত্রে আপনার পোস্টে বা আপনার কারণে অনেক জায়গায় আমাকে গালিগুলো দেখতে হয়। ডাসনট লুকস গুড। সুতরাং আপনিও্। খুব সরী, কিছু করার নাই। এজন্য আমি মর্মান্তিকভাবে আহত এবং দু:খিত। আমি নিজেই মনে করি এটা আনফেয়ার।

চ. অনেক সময় বাই মিসটেইক হয়ে যায়। একজনকে করতে গিয়ে আরেকজন। মানে এর থেকে বড় দু:খ আর কিছু নাই। মাউস পয়েন্টার বা ফেবুর এফিশিয়েন্সী প্রবলেম।
=================

আরও একটা ইন্টারেস্টিং ব্যাপার:
আমার ফ্রেন্ডলিস্ট এ এখনও অনেক মা*হাজী ভাই আছেন। ছুপা না, একদম প্রকাশ্য কিন্তু তাদের উত্তম আখলাকের কারণে তাদের কাউকেই আমি ব্লক করি তো নাই, ইভেন ইনবক্সে- কমেন্ট চালাচালী, হাসি ঠাট্টা সবই চলতেছে। কারণ তারা ভদ্রভাষায় তর্ক চালাতে চানেন। এট লিস্ট কখন থামতে হবেন এটা জানেন। এমন লোকের সংখ্যা প্রচুর। পচ্চুর। সবাই তো আর গালিবাজ না, কটূভাষী না।

তো , আমি যদি বিদ্বেষ রাখতাম , তাদের সাথে কিভাবে আছি? তারা কিভাবে আছে?

তাদের সাথে কখনও ঝামেলা হবেনা। তারা ওই বয়স পার করে এসছে।

=========

আপনারা মূলত এখনও বয়স কম, উত্তেজিত যুব সমাজ। আপনাদের বুকে অনেক ব্যথা। পৃথিবীর সব জায়গায় মুসলিম জাতির দুরাবস্থা দেখে আপনারা এ রকম মেন্টালিটির হয়ে গেছেন। সেটা অস্বাভাবিক নয়। সেটা আমরা বুঝি। এ বয়সে মানুষ সবকিছু লিটারালী দেখে এবং সহজেই রেগে যায়, আমিও যাইতাম। হরমোন ওভার ফ্লো প্রবলেম, বিয়ে দরকার। তাজকিয়াতুল নফস দরকার। সময় দরকার। আমার নিজেরও দরকার।

আরকিছুনা।

ব্লকিত ভাইদের প্রতি ভালবাসা রইলো তাই, আপনারা মুসলিম এজন্য আপনাদের প্রতি ভালবাসা ❤️ । ভাল থাকবেন। দুয়া করবেন। আসুন ঝগড়াঝাটি না করে উম্মাতের জন্য নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করি। নিজেকে ডেভেলপ করতে থাকি। নিজের সময়কে মূল্যবান কাজে দি, ঝগড়াঝাটি করে নষ্ট না করি। এগুলো বেহুদা কাজ। অনৈক্য নিয়ে টেনশন করার দরকার নেই, সময় হলে সব রসূনের কোয়া একজায়গায় চলে আসবে।

আল আসর।

আপনাদের কাউকেই আমি প্র্যাকটিকালী খারেজী মনে করিনা, (আসতাগফিরুল্লাহ) কারন আপনি যতক্ষণ 'কাজ দ্বারা' তা প্রমাণ না করবেন, ততক্ষণ হবেন না। মনে মনে কি ভাবেন সেটা ব্যাপার না। মনের মধ্যে কত কিছু আসে, তাইনা?।যদিও এ জাতীয় কথা রেগে গিয়ে বলেছি, কিন্তু সেটা রেটরিক। সেটা ট্রেন্ড বুঝিয়েছি। স্থিরসিদ্ধান্ত দি নাই।

জাযাকাল্লাহ।
=======
পুনশ্চ: আপনারা যারা ছুপা রুস্তম ❤️ আছেন, তারা এই পোস্টের স্ক্রীণশট তাদেরকে পাঠিয়ে দিয়েন। নিজ উদ্যোগে।
উম্মাতের মধ্যে ভালবাসা বৃদ্ধির কারণে হয়তো এই আমলের দ্বারা আপনারা বেনিফিটেড হবেন। কে জানে?

M. Rezaul Karim Bhuyan | উৎস | তারিখ ও সময়: 2019-06-22 21:03:48