মোবাইল ফোন, ইন্টারনেট ইত্যাদি মানুষের মনে রিয়ালিটির সংজ্ঞা বদলে দিয়েছে। – শাফকাত রাব্বী অনিক

মোবাইল ফোন, ইন্টারনেট ইত্যাদি মানুষের মনে রিয়ালিটির সংজ্ঞা বদলে দিয়েছে।

বিচিত্র গ্রুপ সেক্স থেকে শুরু করে আইসিসের কল্লা কাটার ভিডিও মানুষ ইতমধ্যে ফোনে দেখে ফেলেছে। তার আর দেখার কিছুই বাকি নাই।

তাই তাজ্জব কিছু চোখের সামনে ঘটে গেলেও সে অবাক হয় না, কারন সে এগুলো তো আগেই দেখেছে।

শকড হবার মতো কিছু দেখে, আগের মতো শকড হবার যতটূক কারন এখনো বাকি থাকতে পারে, তাহচ্ছে আজব জিনিস ভিডিওতে না দেখে, সামনা সামনি লাইভ দেখতে পারার ব্যাপারটা। সেটাও এমন এক অনুভুতি যা ঘোর কাটায় না — ঘোর বাড়ায় — অনেকটা ভিডিওতে দেখা সার্কাস কিংবা সেলিব্রিটী সামনা সামনি দেখে ফিট খাওয়ার মতো।

আগের যুগের মানুষ তাজ্জব জিনিস দেখতোই কম, যা দেখতো
তা ছিল শুধু রিয়াল লাইফে, একারণে সে রিয়াক্ট করতো অন্য ভাবে। তখন ভারচুয়াল লাইফ বলে তো কিছুই ছিল না।

এখন দুনিয়ার অনেক দেশেই খুন খারাপির সময় মানুষ আশে পাশে দাঁড়ায় থাকে।

কেউ কেউ তো সারাদিন ঘোরের মধ্যেই থাকে, আর কেউ খুন হতে দেখে নতুন করে ঘোরের ভিতরে ঢুকে।

কারও হাত আবার আনমনে চলে যায় পকেটের ক্যামেরায়, সেই ঘোরটাকেও ফ্রেমে ধরে রাখতে।

আমেরিকায় প্রচুর স্কুল শুটীং হয়। আমার ছোট দুই ছেলে মেয়েরা ইসলামিক স্কুলে পড়ে। টেক্সাসে বন্দুক নিয়ে ঘুরে সবাই। একারণে পাগল ছাগল কেউ ইস্লামিক স্কুলে ঢুকে কিছু একটা করতে পারে এই ভয়টা আমাদের গার্জিয়ানদের সব সময় তাড়া করে। তবে এই সব ভয় পেলে স্কুল শুধু না, জুম্মার নামাজও পড়া হবে না।

ছেলে মেয়ের স্কুলের বাইরে সব সময় পুলিশ থাকে। নিজস্ব প্রাইভেট সিকিউরিটি থাকে। আমি বিভিন্ন সময় খেয়াল করে দেখেছি যে, পুলিশ গাড়িতে বসে ফোন ব্রাউজ করছে। একদিন দেখি একজন ফেইসবুকে চ্যাট করছে। এটা ঠিক কিছু একটা ঘটলে পুলিশ হয়তো তার সেই ঘোর থেকে বেড়িয়ে আসবে, কিন্তু আমার মূল বক্তব্যটা হলো, খোদ পুলিশও ঘাপটি মেরে ঘোরের মধ্যে থাকে।

মানুষের শকড হতে পারার সমষ্টিক ক্ষমতা কমে যাবার ফলাফল হচ্ছে ভারতে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে মানুষকে খুন হতে দেখা, মায়ানমারে কাউকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার ভিডিও ধারন করা, বাংলাদেশে প্রতিবন্দি ব্যাক্তিকে গাছের সাথে বেঁধে পিটানোর ছবি হাসতে হাসতে তোলা ইত্যাদি।

এরকম সময়ে মুক্তির পথ পেতে হলে সব চাইতে বেশী যেটা দরকার সেটা হচ্ছে আইনের শাসন ও বিচার। পাবলিক এক্টিভিজম দিয়ে, পাবলিকের ঘোর কাটানোর কোন উপায় নাই, এখানে রাষ্টের ভুমিকা থাকা লাগবে।

Shafquat Rabbee Anik | উৎস | তারিখ ও সময়: 2019-06-27 12:04:59