আপনি যদি নর্থ কোরিয়ায় গিয়ে বলেন বর্তমান সুপ্রিম লিডার কিম জং উনের পাপা – আমান আবদুহু

আপনি যদি নর্থ কোরিয়ায় গিয়ে বলেন বর্তমান সুপ্রিম লিডার কিম জং উনের পাপা আগের সুপ্রিম লিডার কিম জং ইল ২০১১ সালে মারা গেছেন, তাহলে আপনি এই কথা বলার মাধ্যমে একটা রাষ্ট্রবিরোধী অপরাধ সম্পন্ন করলেন এবং বাকী জীবন আপনাকে কাটাতে হবে দূর পার্বত্য এলাকার শ্রম শিবির নামের জেলখানাতে। নর্থ কোরিয়ার সংবিধান অনুযায়ী সুপ্রিম লিডাররা মারা যাননা, তারা রাষ্ট্রপরিচালনার গুরুদায়িত্ব থেকে বিশ্রামে যান। তখন তাদের পদবী হয় এটারনাল লিডার। যেমন ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ বন্ধু বর্তমান সুপ্রিম লিডার কিম জং উন যখন ভবিষ্যতে বিশ্রামে যাবেন তখন তিনি সুপ্রিম লিডার থেকে এটারনাল লিডার হয়ে যাবেন।

২০১৮ সালের নির্বাচনের পর এক রিপোর্টে রয়টার্স বলেছিলো, এই ধরণের নির্বাচন হয় নর্থ কোরিয়ায়। বাংলাদেশ নিয়ে গত দশ বছরে যত মন্তব্য শুনেছি, রয়টার্সের এ মন্তব্যটা মনে হয়েছে সবচেয়ে বেশি যথার্থ। অনেকটাই প্রফেটিক।

বাংলাদেশের এটারনাল লিডারও বিশ্রামে আছেন। জাফর ইকবাল লিখেছিলো, তিনি উপর থেকে পর্যবেক্ষণ করছেন। তিনি কিন্তু নর্থ কোরিয়ার এটারনাল লিডার থেকেও বেশি মহান। তিনি বিশ্রামে গিয়ে তার সন্তানদেরকে ভুলে যাননাই।

এ বছরের বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে তার নতুন বই 'নয়া চীন ভ্রমণ'। প্রচারণা এবং রাষ্ট্রীয় শক্তি খুব শক্তিশালী বিষয়। অসংখ্য নন-আওয়ামী লীগ গান্ডুকেও দেখবেন বলতেছে, ভাই যাই বলেন না কেন অসমাপ্ত আত্মজীবনীটা কিন্তু আসলেই পাপার লেখা হু হু, এটা ঐতিহাসিকভাবে প্রমাণিত।

এই জ্ঞানপিপাসু বইপাগল বাঙালি জাতের জন্য আগামী বছরের বইমেলায় প্রকাশিত হবে লেজার ভুতের পরবর্তী বই, গোয়ালন্দ ঘাটে ডাকাতির দিনগুলো।

Aman Abduhu | উৎস | তারিখ ও সময়: 2020-02-02 19:10:23