করোনা ভাইরাস কতটুকু ছড়িয়েছে, তা তো আপনারা জানেন। তো এ নিয়ে একটু পাবলিক ডেটা দেখে একটু প্রে – রেজাউল করিম ভূইয়া

করোনা ভাইরাস কতটুকু ছড়িয়েছে, তা তো আপনারা জানেন। তো এ নিয়ে একটু পাবলিক ডেটা দেখে একটু প্রেডিকশন করলাম। জন হপকিন্সের একটা ওয়েবে ডেটা দেয়া আছে। যদি এ ডেটা সত্যি হয়ে থাকে, তাহলে আজ, ফেব্রূয়ারী ৬ তারিখে ৩৪ হাজার লোক আক্রান্ত হয়েছে, মারাগেছে ৭০০ লোক।

এটা অত ভয়াবহ নয়, মৃত্যুর হিসেবে, কিন্তু ভয়াবহ, আক্রান্ত ব্যক্তির হিসেবে।

====

তো যেভাবে আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা বাড়তেছে, তা দেখে আমার পিলে চমকে উঠলো। যদিও ডেটা ভুল হতে পারে , মানে চায়না হয়তো আস্তে আস্তে ছাড়তেছে।

====
তবে যদি ডেটা সত্যি হয়ে থাকে, তাহলে তার প্রেডিকশনটা বলতেছি। ডেটা নিয়ে এক্সেলে প্লট করে দেখলাম এক্সপোনেনশিয়ালী আক্রান্ত লোকের সংখ্যা চায়নায় বাড়তেছে। তবে ইনিশিয়াল পয়েন্ট টা জানা নেই, এজন্য আর-স্কয়ার আসে ০.৯৫। তো সেকেন্ড ডিগ্রী পলিনমিয়াল দিয়ে প্রেডিকশন করলাম (আর-স্কয়ার=০.৯৯৯) , যে আগামী ৫০ দিনে কি পরিমান আক্রান্ত হবে, যদি এই রেটে সব চলতে থাকে?
রেজাল্ট? ভয়াবহ। জানিনা তা হবে কিনা। তবে যদি এভাবে চলে তাহলে আসলে চায়না ভয়াবহ অসুবিধায় পড়বে।

নীচে গ্রাফটা দিলাম, প্রেডিকশন বলছে, যদি এই রেটে চলে তাহলে আর ৫০ দিন পর আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা হবে এক লক্ষ । যদি ৯০ দিন? ছয় লক্ষ।
যদি ৩০০ দিন? প্রায় এক কোটি।

যদিও আসলে এটা একসময় 'প্লাটু' ফরম করে পরে ডাউন হবে। এত ক্ষয়ক্ষতি হবার কথা না। কারন এখন কোয়ারান্টাইন করে ফেলছে। ব্যবস্থা নিয়েছে। এখন দেখতেছেন আগের ক্ষয়ক্ষতির আউটকাম।

তবে , চায়না বড় ধাক্কা খেয়েছে সন্দেহ নাই। খুব লোক মারা যাবে বলে মনে হয়না, কারন এখন পর্যন্ত ডেথ রেট নাম্বার অব ইনফেকশনের ৩-৪%; তবে মৃত্যুর থেকেও প্যানিক হয়েছে বেশী। মানুষ ধাক্কা খেয়েছে বেশী। এটা চাইনিজ অর্থনীতিতে বড় ধাক্কা দিবে, যদি তারা সেভাবে সামলাতে না পারে। হপকিন্স এর ওয়েবে দেখলাম, চায়নার প্রতিটা রাজ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে, পুরো চায়না শাট ডাউন হয়ে আছে। ইভেন বেইজিং পর্যন্ত।

তবে যদি ওরা এটা থামাতে না পারে, এক বছরে এক কোটি লোক আক্রান্ত হবে __ এটা একটা ভয়াবহ নিউজ। ( যদিও আমি মনে করি, এসব জাস্ট প্রেডিকশন মাত্র, এটাকে এত সিরিয়াসলী নেবার দরকার নেই। জাস্ট ধারনার জন্য। আসলে তার আগেই তারা সামলে নিবে হয়তো )




M. Rezaul Karim Bhuyan | উৎস | তারিখ ও সময়: 2020-02-08 07:17:08