বাংলাদেশীদের বড় একটা অংশই বর্ণবাদী এবং ঘৃণাবাদী মানসিকতার লোকজন এইটা এ – আমান আবদুহু

বাংলাদেশীদের বড় একটা অংশই বর্ণবাদী এবং ঘৃণাবাদী মানসিকতার লোকজন এইটা এখন মোটামুটি সবাই জানে এবং বুঝে। আমার এক পাকিস্তানী বন্ধু কিছুদিন আগে বলেছিলো কোন এক জায়গায় না কি এক বাংলাদেশীর সাথে পরিচয় হওয়ার পর যখন শুনলো সে পাকিস্তানী, সাথে সাথে না কি চোখ মুখ শক্ত করে এড়িয়ে গিয়েছে তাকে। এতোটাই রুঢ় ছিলো ঐ আচরণ যে সে নিজেই সেটা উপলদ্ধি করেছে। তার কাছ থেকে এই ঘটনা শুনে আমি তাকে বলেছিলাম এটা নিয়ে চিন্তা না করতে কারণ এইসব বাঙ্গুরা আসলে কাঙাল এবং হীনমন্য চেতনাতসি।

আজ দেখলাম ভন্দু তার দেশের পিন পড়ে ঘুরতেছে। কারণ আজকে তার দেশের জাতীয় দিবস। বললাম, এইটা আমাকে দিয়া দাও আমি পড়বো। একই সাথে তাকে স্মরণ করায়া দিলাম গতসপ্তাহে রক্তদান করিয়া পাওয়া রেডক্রসের সুন্দর পিন এবং চাবির রিং দেখে সে প্রশংসা করার পর তাকে দিয়া দিছিলাম। আমাদের ছোটবেলার শিক্ষা অনুযায়ী এইরকম দেয়ানেয়া করতে হয় সুতরাং এখন এইটা আমার পাওনা আছে। তখন সে বলে, তুমার দেশের লোকজনে তোমাকে একঘরে করে দিবে। শুনে হাহাহাহ করে অট্টহাসি চলে আসলো।

অবশ্য এই কথা শুনে আইডিয়া এসে গেছে, এইটা মাঝে মাঝে পড়ে বাংলা এলাকায় ঘুরে শাহবাগিদের চুলকে দেয়া হবে।

শার্টে যে লাগানো ছিলো সারাদিন তা খেয়ালই ছিলো না। বিকেলের দিকেও এইটা পড়া আছি দেখে ভন্দু খুশি হয়ে নিজ হাতে চা বানিয়ে খাওয়ালো। রেজাকার হতে পেরে খারাপ লাগছে না। ভাড়তীয় ভন্দুকেও অবশ্য কথা দিছি সে যদি আগামীকালকে তার দেশের জাতীয় দিবস উপলক্ষে এইরকম একটা দেয় তাহলে একদিনের জন্য স্পেশাল কনসিডারেশনে পড়বো কিন্তু অন্য সময় পড়বো না। অন্যসময় শুধু পাকিস্তানেরটাই পড়বো দুইটা কারণ, প্রথমত আধিপত্যবাদী ভাড়ৎকে আমার ভালো লাগে না এবং জেনোফোবিক শাহবাগিদের চুলকানি তৈরি করতে আমার ভালো লাগে।



Aman Abduhu | উৎস | তারিখ ও সময়: 2019-08-14 15:50:10