ইন্ডিয়াতে মুসলমানদের ভবিষ্যৎ – ফাহাম আব্দুস সালাম

আপনারা যারা ভারতে ইসলামোফোবিয়ার বিপরীতে সহনশীল ও সেকুলার ভারতীয়দের প্রতিবাদকে গ্লোরিফাই করেন বা করতে চান তারা ভুল করছেন। আপ্নেরা – যা ইনেভিটেবল সেইটারে বিলম্বিত করতেছেন।

আপনাদের ধারণাও নাই মোদীর পপুলারিটি কীরকম বাড়ছে। তিনি এর পরের বারে আগের চাইতে বেশি সিট পাবেন।

পাকিস্তান ও বাংলাদেশেও সাম্প্রদায়িতকতা আছে। কিন্তু পাকিস্তান ও বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতার পপুলার সাপোর্ট নাই – আছে কোটারী সাপোর্ট।

ইন্ডিয়াতে মুসলমানবিদ্বেষ ভয়ঙ্কর পপুলার – সব ক্লাসে। আপনি লিখা রাখতে পারেন নরেন্দ্র মোদীর ভোট ব্যাংক ইন্ডিয়াতে আরো বাড়ছে। যতো বেশি মুসলমান হত্যা করা যাবে ততো বাড়বে এই পপুলারিটি। এবং ইন্ডিয়ার একেনমি যত খারাপ হবে (যেইটা ইনেভিটেবল), মুসলমান-নিধন ততো বাড়বে।

যারা এই গণমনোবিকাররে ভোট দিয়ে পরাস্ত করবেন বলে আশা করতেছেন তারা বোকাচোদা। মোদি যদি আরেকটা গুজরাট পুলঅফ করতে পারেন – তিনি নেহেরুর চেয়ে বড় নেতায় পরিণত হবে।

পৃথিবীব্যাপী লিবারেলদের এই একই সমস্যা – নিজেদের ক্ষমতার ওভারএস্টিমেশন করা। তারা একটা লেফটি গান য়ুটিউবে ধরেন এক বিলিয়নবার দেখা হৈছে – তারা মনে করে যে এক বিলিয়ন লোক লেফটি প্রেমে গোসল করতেছে।

ভোটের রাজনীতিতে ঘৃণা ওয়ার্কস। ঘৃণার ন্যারেটিভ সব সময় সব সমাজে তৈরী থাকে – আপনার দরকার শুধু উস্কে দেয়া। এতো তাড়াতাড়ি ও কনভিন্সিংলি ঘৃণার রাজনীতি প্রসার পায় যেটা আপনি চিন্তাও করতে পারবেন না। এই ন্যারেটিভকে রেজিস্ট করতে হয়। যেকোনো সুস্থ মানুষকে ঘৃণার রাজনীতি রেজিস্ট করতে হয়, শুধু অপছন্দ করে কিংবা ভোট না দিয়ে দুই পয়সা লাভ হয় না।

ইন্ডিয়ার মুসলমানরা যদি নিম্ন বর্ণের হিন্দুদের সাথে এফেক্টিভ এলায়েন্স তৈরি করতে না পারে – মুসলমান নিধন মহামারী আকার ধারণ করবে।

ইন্ডিয়াতে এসেন্সিয়ালি মুসলমানদের ভবিষ্যৎ হোলো গেটো। মুসলামনদের আলাদা একেনমি তৈরি হবে। ভারতবর্ষে ঘৃণার রাজনীতি যেই হাওয়া পাইছে – আমাদের জীবদ্দশায় এইটা থামানো যাবে কি?

Faham Abdus Salam | উৎস | তারিখ ও সময়: 2020-02-26 19:47:24