গতকাল থেকে আওয়ামিরা নতুন এক ন্যারেটিভ পয়দা করতে উঠেপড়ে লাগছে : কেমন করে জনগণের ( – আসিফ সিবগাত ভূঞা

গতকাল থেকে আওয়ামিরা নতুন এক ন্যারেটিভ পয়দা করতে উঠেপড়ে লাগছে : কেমন করে জনগণের (সাধারণ ও বিভিন্ন কোম্পানির মালিক) কাছে টাকা সংগ্রহ করে COVID-19 মোকাবেলা করা যায়!

এসব নিয়ে বেশ কিছু পোস্ট ও মিমসও তারা তৈরি করে সেই হারে শেয়ার-লাইক করতেছে।

এখন প্রশ্ন হলো সরকারের তো টাকার অভাব পড়েনি, জনগণকে কেন টাকা দিতে হবে?
.

এই লেখাগুলো বা কিছু মিমস (নিচে কমেন্টে দেখুন। পোস্টটা কপি করলে অবশ্যই কমেন্ট থেকে উদাহরণ দুইটাও আপনার পোস্টের কমেন্টে দেবেন, যেন মানুষ বুঝতে পারে সহজে কি বিষয় নিয়ে কথা বলছি) আওয়ামিরা ইচ্ছা করে অনলাইনে ছড়ায় যেন তাদের ব্যর্থতা থেকে মানুষ চোখ সরিয়ে নেয়।
.

সোলায়মান সুখনদের মত চাটারিরা হলো এসব মতবাদ তৈরির প্রধান কারিগর আর বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ (যেমন Voice Of Rights) হলো লক্ষ লক্ষ বাংলাদেশীদেরকে তাদের তৈরি করা এসব মতবাদ/ন্যারেটিভ জোর করে খাওয়ানোর মাধ্যম।
.

আর আওয়ামিরা দেখবেন এসব মিমস/সোকল্ড “পজিটিভ নিউজ” যেমন কোন বিশ্ববিদ্যালয় এলকোহলের সাথে পানি মিশায়ে কি করল, কোন ফ্লাটের মালিক তার ফ্লাটের ভাড়া মওকুফ করল (এসব অবশ্যই ভালো উদ্যোগ) সেসব নিউজ বেশ জোরেশোরে শেয়ার চালায়ে যায় সাথে থাকে এরকম কিছু ক্যাপশন

“শুধু সরকারকে দোষ দিলেই হবে না, নিজে কিছু করতে হবে।”

“দোষ সবাই দিতে পারে, উদ্যোগ নিতে পারে কয়জন?”

.

লক্ষ্য করবেন আওয়ামিদের এসব চালাকিগুলো, এদের মূল লক্ষ্য কিন্তু পজিটিভ কোনো কিছু শেয়ার করা নয়। সরকার যে ব্যর্থ করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে, আপনি যেন সেই বিষয়ে কথা না কইয়া নানা রকম “সচেতনতা/পজিটিভতা মারানি” কথা-আলোচনা নিয়া ব্যস্ত থাকেন, সেটাই এদের মূল লক্ষ্য।

.

এদের ফেসবুকে যদি ঢোকেন তবে আপনি বুঝতেও পারবেন না সরকার বলতে দেশে কিছু আছে, সরকারের ব্যর্থতার খবর তো দূরের কথা। এরা ব্যস্ত সুখনের মত নানান রকম “পজিটিভিটি” ছড়াতে এবং কেন আপনার সরকারকে কোনো দোষ দেয়া উচিত নয় বা দোষ না দিয়ে নিজেদেরই সবকিছু করা উচিত সেই ন্যারেটিভ প্রমাণ করতে।
.

দুঃখের বিষয়, অধিকাংশ বাংলাদেশীরই

“ক্রিটিকাল থিংকিং” শূণ্যের কোঠায়।

.

তারা সোলায়মান সুখনদের এসব mass manipulation টেকনিকগুলো ধরা তো দূরের কথা, উল্টো এসব পারলে শেয়ার করতে করতে ফেসবুক গরম করে ফেলায়।

.

বাংলাদেশীদের critical thinking কে উন্নত করা উচিত, নয়তো সবসময় সুখনদের মত চাটারিদেরকেই তারা Nelson Mandela/Martin Luther King মনে করে বসে থাকবে।

.

(আপনি পোস্ট ও ছবিটা কপি করে পোস্ট করুন পারলে, ক্রেডিট দেবেন না, কালেক্টেড লেখারো দরকার নেই। আমি চাই মানুষ এসব manipulation technique গুলো বুঝতে শিখুক।)

পুরো পোস্টটা পড়ছেন তো? এখন সুখনের এই ভিডিওটা দেখেন, বুঝতে পারেন কিনা দেখেন এই চাটারির কথার মারপ্যাচ। যদি বুঝতে পারেন তবে বুঝব আমার লেখাটা সার্থক

https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=10157186997242794&id=592082793

.

Mass manipulation নিয়ে আমার লেখা “দ্বিতীয় পর্ব” পড়ুন এখানে :

https://www.facebook.com/bayezidht26/posts/2531352727104140



Asif Shibgat Bhuiyan | উৎস | তারিখ ও সময়: 2020-03-23 17:11:26