খাবার দাবারের কাজটা আমি যত আউটসোর্স করতে পারি আমার ততই সুবিধা। আমি সাধারণত এক বে – আসিফ সিবগাত ভূঞা

খাবার দাবারের কাজটা আমি যত আউটসোর্স করতে পারি আমার ততই সুবিধা। আমি সাধারণত এক বেলা বেশি করে খাওয়াদাওয়া করি। ঐ একটা মিল ভালো হওয়াটা আমার জন্য জরুরি। অনেক সময় খাবার বাইরে থেকে অর্ডার যেমন করি তেমনি বাইরেও খাওয়া হয়। কিছু পছন্দের খাবার নিয়ে ধারাবাহিক পোস্ট করতে ইচ্ছে করছে।

প্রথম পোস্টটা আমার এযাবৎ কালের সবচেয়ে পছন্দের হোম ডেলিভারি নিয়ে। Fat Boy Pies নামের রেস্টরেন্টটি এই ৪ ধরণের চিকেন উইংস করে। ৪টাই অত্যন্ত মজার এবং এক সাথে খেলে ফ্লেভারের ব্যালেন্সটা হয় অসাধারণ।

আমার সবচেয়ে পছন্দেরটা যেটা সেটা নিয়ে প্রথমে আমি সবচেয়ে সন্দিহান ছিলাম। কোকোনাট ক্রাস্টেড চিকেন উইংস। নারকেলের ক্রাস্টের সাথে চিকেন উইংস এত ভালো যাবে আমি বুঝতে পারিনি। উমামি বম্ব বলা যেতে পারে। দ্বিতীয় পছন্দেরটি হোলো পাইনঅ্যাপ্‌ল গ্লেইজড। এটা একই সাথে মারাত্মক স্পাইসি, ঝাল এবং মজার। তৃতীয় স্থানে পারমেজান চিজ কোটেড উইংস। খুবই মজার কিন্তু তারপরেও তৃতীয় স্থানে রাখছি। চতুর্থ স্থানে থাকবে বাফেলো উইংস। চতুর্থ স্থানে আছে বলে খারাপ নয় মোটেই। আমাকে যদি শুধু এই বাফেলো উইংস দেয়া হোতো তাহলে মজা করেই খেতাম কিন্তু বাকিগুলোর সারপ্রাইজ ফ্যাক্টরের সাথে পেরে উঠলো না আরকি হেহে। এই র‍্যাঙ্কিং খুবই রেলেটিভ। আমি নিশ্চিত অন্যরা ট্রাই করলে প্রচুর ভিন্ন মত আসবে। বিশেষ করে কোকোনাট ক্রাস্টেড উইংসের ব্যাপারে। দ্যাটস ফাইন। কিন্তু এই উইংসগুলো এক সাথে ট্রাই করার মজাই আলাদা। প্রতি টাইপের উইংস আপনাকে ৬টার আলাদা বক্স হিসেবে অর্ডার করতে হবে। ওদের পেইজে গেলেই পাবেন যদি অর্ডার করতে চান। সাথে পাঠাবে ওদের গার্লিক মেয়ো ও চিলি সস। ওদের অন্য খাবারগুলোও খুব ভালো। বাট আই লাভ মাই উইংস। 😎

আমাকে কিছু কিছু হোম ডেলিভারি পেইজ তাদের খাবার রিভিউ করতে বলে। আমি সবিনয়ে প্রত্যাখ্যান করি। এই রিভিউ আমার নিজে থেকে করা, ফ্যাট বয় পাইয়ের তরফ থেকে কোনও প্রোমোশন নয়। আমি নিজে পছন্দ করা জিনিসই কেবল রেকমেন্ড করবো। আর আপনারা অর্ডার করতে চাইলে নিজ দায়িত্বে করুন। আমাকে গালি দেবেন না। যে বলে সেই।

উৎস । তারিখ: 2021-01-03 15:10:31

9 thoughts on “খাবার দাবারের কাজটা আমি যত আউটসোর্স করতে পারি আমার ততই সুবিধা। আমি সাধারণত এক বে – আসিফ সিবগাত ভূঞা”

  1. খিদা লাগায়ে দিলেন। ছবি দেখে তো খিদা লাগে না কিন্তু বর্ণণা পড়ে আজ রাতের ‘সাদাসিধে জীবনের’ পরিকল্পনা উলটপালট হয়ে গেলো।

  2. Your food photography is terrible. 😀 You have ruined the heartfelt narrative with four out of focus tiny wings photos! To me it first felt like left over crushed bones of wings!😃

  3. ভাইয়া, আপনার পক্ষ থেকে এই উইংসগুলো ট্রিট হিসেবে খাওয়ার জন্য এখনই ঢাকা চলে যাইতে ইচ্ছে করতেছে…

Comments are closed.