প্রতি শনিবার স্কুল বন্ধুদের আড্ডা বসে রাতে। আমার বারবার মিস হয়ে যাচ্ছিলো। কালকে – আসিফ সিবগাত ভূঞা

প্রতি শনিবার স্কুল বন্ধুদের আড্ডা বসে রাতে। আমার বারবার মিস হয়ে যাচ্ছিলো। কালকে জয়েন করলাম এবং করেই বিশেষ সারপ্রাইজ পেলাম। সেন্ট জোসেফের কিংবদন্তির টিচার সাবেরা ম্যাডাম যোগ দিয়েছিলেন আমাদের সাথে (সবার ডানে ওপরে)। কত গল্প! ইমোশনাল না হয়ে উপায় ছিলো না।

আমরা যখন ক্লাস এইটে পড়ি তখন আমাদের ব্যাচ সিলেটে একটি ট্রিপ দেয়। আমি ট্রিপে গিয়েই প্রচন্ড জ্বরে একেবারে বেড রিডেন হয়ে গিয়েছিলাম। তখন এই সাবেরা ম্যাডাম ও সুরাইয়া ম্যাডাম আমার যে যত্ন নিয়েছিলেন এটা আমি কখনও ভুলিনি। কাল ম্যাডামকে আবার সে ঘটনা জানিয়ে ধন্যবাদ দিয়ে খুব ভালো লেগেছে। ম্যাডাম আমাকে জানালেন তিনি আমার লেখালেখি পড়েন প্রায়ই। এর চেয়ে ভালো কমপ্লিমেন্ট জীবনে আর কখনও পাবো না, পেতে চাইও না আসলে।

ম্যাডামের কাছেই জানলাম যে সুরাইয়া ম্যাডাম এখন পারকিনসন’স ডিজিজে ভুগছেন। আমাদের বেশ কজন শিক্ষক চলে গেছেন ইতোমধ্যে। আল্লাহ্‌র কাছে দরখাস্ত থাকবে যেন তিনি‌ সব শিক্ষকদের ভালো রাখেন। বিশেষ করে সাবেরা ম্যাডাম ও সুরাইয়া ম্যাডামকে – তাদের কাছে আমার অনেক ঋণ।

উৎস । তারিখ: 2020-07-12 08:01:13

4 thoughts on “প্রতি শনিবার স্কুল বন্ধুদের আড্ডা বসে রাতে। আমার বারবার মিস হয়ে যাচ্ছিলো। কালকে – আসিফ সিবগাত ভূঞা”

  1. আমার ছেলে এ বছর সেন্ট জোসেফ এ ভর্তি হয়েছে, দূর্ভাগ্য যে স্কুলে যেয়ে ক্লাস করতে পারছেনা ।

  2. সাবেরা ম্যাডামের ঠিক নিচে ঘন কালো চুলওয়ালা এবং শুকনা করে যেই লোকটাকে দেখা যাচ্ছে, কোথায় যেন আপনার সাথে ওনার বেশ মিল খুঁজে পাচ্ছি!

Comments are closed.