বাংলাদেশে ধর্ষণবিরোধী জনমত নাই – এটা বলা যাবে না – কিন্তু এখানে ধর্ষণবিরোধী গণসম – ফাহাম আবদুস সালাম

বাংলাদেশে ধর্ষণবিরোধী জনমত নাই – এটা বলা যাবে না – কিন্তু এখানে ধর্ষণবিরোধী গণসমাবেশ সফল হবে না। এর কারণটা মনস্তাত্ত্বিক। এই দেশে এবং ভারতে দীর্ঘদিন হিন্দী সিনেমায় দেখানো কালচার মানুষের মধ্যে যে সেক্চুয়াল পার্ভার্শন তৈরী করেছে সেটা বর্ণনাতীত।

কোনো ফর্সা মেয়ে রেইপড হলে বাঙালি রাস্তায় নামতো কারণ তার ফ্যান্টাসিতে কেবল ফর্সা ও প্রজননক্ষম মেয়েরাই রক্ষাযোগ্য – বাকীরা এক্সপেন্ডেবল। ফর্সা মেয়ে ধর্ষিত হলে সে ভায়োলেটেড মনে করতো কারণ এক্ষেত্রে সে প্রতিযোগিতায় হেরে যাচ্ছে বলে মনে করতো।

ইন ফ্যাক্ট অধিকাংশ বাঙালির কাছে, অধিকাংশ দেখতে অসুন্দর মেয়েদের রেইপ – এই ব্যাপারটা ট্রিভিয়াল – করাই যায় টাইপ ব্যাপার।

আপনার আশ্চর্য লাগতে পারে – আমি যখন খুবই ছোটো – যখন আমি সেক্স ব্যাপারটা কী ভালো করে বুঝতাম না – তখনই আমি ধর্ষণের কাছাকাছি একটা কনসেপ্টের সাথে পরিচিত হয়েছিলাম।

আমি জেনেছিলাম যে মেয়েরা “নষ্ট“ হয়ে যায়। চয়েস অফ ওর্য়াডস খেয়াল করবেন। রেইপ করলো ছেলেটা কিন্তু নষ্ট হয়ে গেলো মেয়েটা।

এর কারণ হলো রেইপ কিংবা যেকোনো মলেস্টেশানকে বাঙালি এতো স্বাভাবিক ভাবে নেয় সেক্সচুয়াল মলেস্টেশনের কোনো অর্গানিক বাংলায় ডেভেলপড টার্মিনোলজি নাই।

আপনি যদি মনে করে থাকেন বাঙালিরা মেয়েদের সম্মানের জন্য রাস্তায় নামবে – আপনি ভুল করলেন। এখানে শুধুমাত্র ফর্সা ও বিত্তশালী মেয়েরা সম্মানের অধিকারী। বাকীদের ধর্ষণ – ব্যাপার না।

উৎস । তারিখ: 2020-10-05 17:08:25

18 thoughts on “বাংলাদেশে ধর্ষণবিরোধী জনমত নাই – এটা বলা যাবে না – কিন্তু এখানে ধর্ষণবিরোধী গণসম – ফাহাম আবদুস সালাম”

  1. না হলো না, একেবারেই অবাস্তব কথন। বাংলাদেশিরা সমস্ত রেইপে একই রকম প্রতিবাদী তবে যুৎসই প্রতিবাদ করার মতো যথেষ্ট সাহসী না।

  2. নষ্ট করার দর্শনটা ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে নব্বইয়ের দশকের বাংলা মুভিগুলো।

  3. কি চমৎকার করে মনস্তত্ত্বটা আলোচনা করলেন, আক্ষেপ যে কেউ এইগুলা পয়েন্ট আউট ই করবে না।
    খালি পাইছে ওই যে হিজাব কই টাইপের দুই চারটা নন ইনফ্লুয়েনশিয়াল কমেন্ট এন্ড আইডেন্টিটির এগেইন্সটে বীর বিক্রমে আক্রমণ আর প্রতিবাদ।

  4. ফর্সা ব্যাপারটা না হলেও চলে। বিত্তশালী ক্ষমতাবান হলেই হয়। এই দুইটা থাকলে কালো মেয়েরাও জাতীর কন্যা হয়ে যেতে পারেন। আবার এই দুইটার একটাও না থেকে শুধু ফরসা মেয়ে হলে তাকে আবার ঘাটে ঘাটে পানি খাইতে হয় বই কি!

  5. রেইপ করলো ছেলেটা আর নষ্ট হয়ে গেল মেয়েটা, এপিক!!
    পুরুষতান্ত্রিকতা কি দায়ী না এজন্য???

  6. ফর্সা মেয়ের ব্যাপারটা সত্য হতে পারে, বাট তারচেয়েও বাস্তব সম্ভবত আধুনিক, মধ্যবিত্ত, শিক্ষিত, শহুরে তরুণী।

    এটা সব সময়ই প্রযোজ্য। যেমন গুম যদি বিএনপি-জামাতের কোনো নেতাকর্মী হয়, বা মাদ্রাসার ছাত্র হয়, সেটাতে আমরা বিচলিত হই না। কারণ তাদের সাথে আমরা নিজেদেরকে কানেক্ট করতে পারি না। কিন্তু যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ছাত্র বা শিক্ষক হয়, আমরা উদ্বিগ্ন হয়ে উঠি।

    প্রচুর ধর্ষণের সংবাদ আসছে নিয়মিত, কিন্তু সেগুলো সমাজের নিচু শ্রেণির মেয়েদের, গরীবদের নিউজ। সেজন্য যারা শহুরে মধ্যবিত্ত, মূলত যাদের রাস্তায় নেমে প্রথম আন্দোলনের সূচনা করার কথা, তারা সেগুলো পড়েও দেখছে না। কানেক্ট করতে পারছে না বলে।

    আবার অন্যভাবেও দেখা যায়। সড়ক বা নৌদুর্ঘটনায় অনেক বেশি গরীব প্রতিনিয়ত মারা গেলে যতটা আলোচনা হয়, ১০ বছর পর একবার বিমান দুর্ঘটনায় অনেক কম বড়লোক মারা গেলে সেটা অনেক বেশি আলোড়ন সৃষ্টি করে।

    কাজেই যেদিন ঢাকার কোনো বিখ্যাত কলেজ/ভার্সিটির সুন্দরী কোনো তরুণী রেপ হবে, এবং সেটার ছবি বা ভিডিও ভাইরাল হবে, সেদিনই মানুষ রাস্তায় নামবে।

  7. দ্বিমত – পিলখানায় নিজের মেয়ে ধর্ষন, জামাই নিহত হবার পরও আইজি সাহেব টু শব্দটি করেনি, বিচার করা বা চাওয়া তো দুরের কথা। যে রাষ্ট্র তার মেয়ে কে ধর্ষন করলো, সে সেই রাষ্ট্রের রাষ্ট্রদুত হলো, নিজের এলাকায় রাজপ্রসাদ করলো, এমপি হবার তোরজোর করলো… এই আইজিপি নুর রাই আমাদের সমাজপতি, এদের মেয়েরাই “ফর্সা ও বিত্তশালী”, এদের বাবারা অন্ডকোষ হীন

  8. আংশিক ভুল অবজারভেশন,বিষয়টা এমন মোটেই না।
    বাংলাদেশে এতবেশী অপরাধ হয় যে সবাই লাইম লাইট পায় না, পাওয়া সম্ভবও না।
    প্রসঙ্গত সেম টাইপ পোস্ট ঢাকায় গণপিটুনিতে নিহতের সময় আপনার ছিলো কিন্তু সেই প্রতিবাদে কাজও হয়েছে এবং তারপর গণপিটুনির আর খবর আসে নাই।
    প্রতিবাদ একজনের জন্য হলেও হোক সে বেঁচে যাক,ন্যায় বিচার পাক সুন্দরী অসুন্দরী ভিকটিম যেই হোক।

  9. The Raintree Hotel rapist has left the country and his victims would probably fit your profile. They were private university educated girls from upper middle class families. The outrage died down after he and his accomplice were arrested and then everyone forgot about the incidents and the guy got out on bail and, some say, left the country. Not even skin color or higher socioeconomic status made any difference.

  10. আপনার মতো এতো চমৎকার
    করে বাঙালিকে বিশ্লেষণ আর কাউকে আমি করতে দেখিনা! এক ছিলেন হুমায়ুন আজাদ আর এক আপনি! তাই বলে স্যারের সাথে আপনাকে তুলনা করছিনা! স্যারের কোনো তুলনা হয়না!

  11. This post doesn’t match with your usual posts. It looks like some harmonium-party has written this post.
    (1) in our childhood, we not only heard the word “noshto” for girls, but also for boys too.
    (2) Yasmin in Dinajpur was in fact a person belonging to the poor class. I am not sure about the fairness degree of her skin. Still, people got shocked to see the power of the police. And obsession with a Bollywood obscene movies were as much present then as it is now.

  12. তথাকথিত এলিট শ্রেণী ভিক্টিম না হলে বাংলাদেশে জাতির বিবেক ঘুমায়। প্রকৃষ্ট উদাহরণ মেজর সিনহা কাণ্ড।

Comments are closed.